আয়াত নামের অর্থ কি – আরবি, বাংলা, ইংরেজি, উর্দু অর্থ

শিশুর জন্য উপযুক্ত সুন্দর নাম রাখা খুবই গুরুত্ত্বপূর্ণ। পরবর্তী সময়ে এই নাম দিয়েই ব্যক্তির ব্যক্তিত্ত্ব এবং পরিচয় ফুটে উঠে। নাম রাখতে হলে নামের অর্থ, শুনতে কেমন ইত্যাদি বিষয় চিন্তা করতে হয়। এমন অসংখ্য নামের মধ্যে আয়াত একটি জনপ্রিয় নাম। 

আয়াত নামটি বাংলাদেশে তেমন জনপ্রয় নয়। তবে আয়াত নামটি আধুনিক, এর অর্থ ভালো এবং শুনতেও মিষ্টি বচনের। শুধু শুনতে ভালো হলেই নাম রাখা যাই না। নাম রাখার আগে এর অর্থ, কোন লিঙ্গের নাম ইত্যাদি জানা প্রয়োজন। যা আজকের পোস্টে জানতে পারবেন। 

আয়াত নামটি মধপ্রাচ্যে, ভারতের মুসলিম এলাকা এবং আফগানিস্থানে জনপ্রিয় একটি নাম। আয়াত নামটি ফার্সি থেকে এসেছে। আয়াত নামের অর্থ  নিদর্শন,  প্রমাণ, বাক্য,  সূত্র ইত্যাদি। আয়াত নাম সাধারণত মেয়েদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। নামটি ছোট, শুনতে ভালো এবং উচারণে সহজ হওয়ায় এশিয়া মহাদেশে অনেক এলাকায় নামটি ব্যবহার করা হয়। 

আয়াত নামের অর্থ কি 

আয়াত একটি কোরানিক শব্দ। এটি একটি ইসলামিক পারিভাষিক নাম। আয়াত নামের অর্থ হলো – নিদর্শন,  প্রমাণ, বাক্য, সূত্র ইত্যাদি।  ইসলামিক ভাবে দেখলে আয়াত অর্থ আল্লাহর মহত্ত্বের চিহ্ন বা সহজভাবে কুরআনের আয়াত সমূহ। আয়াত নামটি সাধারণত মুসলিম মেয়েদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। 

আয়াত নামের আরবি অর্থ কি

আয়াত আরবি ভাষা থেকে এসেছে। মেয়েদের জন্য এই নামটির অর্থ হলো – আল্লাহর মহত্ত্বের চিহ্ন বা কুরআনের আয়াত। আয়াত নামের আক্ষরিক অর্থ আবার ভিন্ন। আয়াত নামটির আক্ষরিক অর্থ হলো – চিহ্ন বা সূত্র। 

আয়াত নামটি কোন ভাষা থেকে এসেছে

আয়াত শব্দটি আরবি ভাষা থেকে আগত। আরবি শব্দ ‘Ayaa’ থেকে আয়াত বা Ayat এসেছে। আয়াত শব্দ দিয়ে সাধারণত বিশেষ চিহ্নকে বোঝাই। আরবিতে আয়াত শব্দের অর্থ হলো পবিত্র কুরআনের আয়াত / নিদর্শন / প্রমান ইত্যাদি। 

Read More:  আয়াজ নামের অর্থ কি – আরবি, বাংলা, ইংরেজি, উর্দু অর্থ 

আয়াত নামটি অংকে পুরানো একটি নাম। নামটির প্রচলন আদিকাল থেকে হলেও বর্তমানে নামটি বাংলাদেশেও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। 

আয়াত কি ইসলামিক নাম?

জি হ্যা। আয়াত একটি ইসলামিক নাম। আয়াত নামটি আরবি শব্দ আয়া থেকে আগত। আয়াত শব্দ দিয়ে সাধারণত বিশেষ চিহ্নকে বোঝাই। আরবিতে আয়াত শব্দের অর্থ হলো পবিত্র কুরআনের আয়াত / নিদর্শন / প্রমান ইত্যাদি। 

অর্থাৎ আয়াত দ্বারা পবিত্র কোরানের আয়াতকে বোঝানো হয়েছে। 

আয়াত কোন লিঙ্গের নাম?

আয়াত নাম সাধারণত মুসলিম মেয়েদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। .তবে টি নির্দিষ্ট নয়। পাকিস্তান, আফগানিস্তান ইত্যাদি জায়গায় আয়াত নামটি মেয়েদের জন্য ব্যবহার করা হয়। আবার ভারত এবং বাংলাদেশের অনেকে আয়াত নামটি ছেলেদের ক্ষেত্রেও ব্যবহার করে। 

আয়াত নাম রাখা যাবে কিনা

আয়াত নামের অর্থ সুন্দর। এটি একটি ইসলামিক নাম। তাছাড়া নামটি উচারণেও মিষ্টি। অর্থাৎ আয়াত একটি ভালো নাম এবং নামটি ব্যবহার করা যাবে। 

আয়াত নামের ইংরেজি, উর্দু, হিন্দি এবং আরবি বানান 

বিভিন্ন ক্ষেত্রে নামের বানান বিভিন্ন ভাষায় প্রয়োজন হতে পারে। এজন্য নিম্নে আয়াত নামের ইংরেজি, উর্দু, হিন্দি এবং আরবি বানান দেওয়া হলো –

  • ইংরেজি – Ayat 
  • Urdu – آیات
  • Hindi – वर्सेज
  • আরবি – آيات

আয়াত নামের কিছু বৈশিষ্ট্য

নাম  আয়াত বা Ayat 
অর্থ  চিহ্ন 
লিঙ্গ  ছেলে এবং মেয়ে উভয় 
ধর্মীয় পরিচিতি  মুসলিম 
নামের উৎস  আরবি 
ব্যবহারিক দেশ  বাংলাদেশ, ভারত, আফগানিস্তান, পাকিস্তান 

‘আ’ দিয়ে কিছু ছেলেদের নাম

নাম রাখার ক্ষেত্রে আয়াত নামটি সবার পছন্দ নাও হতে পারে। এজন্য নিম্নে ‘আ’ দিয়ে অন্য কিছু নামও দেওয়া হলো – 

  • আবির
  • আদিব
  • আকিল
  • আলী
  • আয়ান
  • আদিল
  • আদনান
  • আহাদ
  • আশরাফুল 
  • আজিজুল হক
  • আফতাব 
  • আবরার
  • আরজু
  • আদিদ
  • আকরাম
  • আবুল কালাম 
  • আজহার 
  • আসফিক
  • আব্বাস 
  • আখলাক 
  • আল-আমিন
  • আসিফ 
  • আরিফ
  • আজিম
  • আয়াজ 
  • আকবর
  • আশিক
  • আব্বাস 
  • আব্দুল্লাহ 
  • আনাস
  • আবু বক্কর 
  • আমিনুল 
  • আশরাফী 
  • আয়ান 
  • আবু-ত্বহা
  • আজমাইন 
  • আলমগীর 
  • আজিজুর 
  • আয়মান 
  • আব্দুর রহমান 
  • আজহার
  • আকাশ
  • আমিন
  • আবদাল
  • আরমান
  • আমান
  • আনোয়ার 
  • আসাদ
  • আরাফ
  • আবদুল হাই
  • আলম 
  • আশিফ
  • আবুল
  • আরহাম
  • আকাশ আহম্মেদ 
  • আলিফ
  • আফরান
  • আয়াতুল্লাহ  
  • আবু-হোরায়রা
Read More:  আরিয়ান নামের অর্থ কি (Arian Name Meaning In Bengali)

আয়াত নামের বিখ্যাত ব্যক্তি ও বিষয়

পবিত্র কুরআনে সূরাসমূহের বাক্যকে আয়াত বা আয়াহ বলা হয়। আরবিতে বহুবচনের ক্ষেত্রে আয়াত এবং একবচনে আয়াহ ব্যবহার করা হয়। বাংলায় একবচন এবং বহুবচন উভয় ক্ষেত্রেই আয়াত শব্দটি বহুল প্রচলিত। 

এছাড়া আয়াত নামের কোনো বিখ্যাত ব্যক্তিবর্গের সন্ধান পাওয়া যাই না। 

সুন্দর নাম রাখার ব্যাপারে হাদিস

সন্তান জন্ম হবার পর তার একটি সুন্দর ইসলামীক অর্থপূর্ণ নাম রাখা পিতামাতার কর্তব্য। এই কর্তব্যে কোন পিতামাতা যদি অবহেলা করেন তবে তার জন্য আল্লাহর কাছে জবাবদিহিতা করতে হবে। রাসুলুল্লাহ সাঃ বলেছেন, কিয়ামতের দিন তোমাদের নিজ নাম ও পিতার নামে ডাকা হবে। সুতরাং তোমরা সুন্দর নাম রাখো। (আবু দাউদ)

শেষ কথা

আসা করি আজকের পোস্টি আপনার কাছে  ভালো লেগেছে। আজকের পোস্টে আমরা আয়াত নাম সম্পর্কে আলোচনা করেছি। আয়াত নামের বিভিন্ন ভাষায় বিভিন্ন অর্থ, নামটি কোন লিঙ্গের, নামটি ইসলামিক কিনা ইত্যাদি বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। যা আপনাকে নাম বাছাই করতে সাহায্য করবে। 

তাছাড়া আয়াত নাম দিয়ে অনেকগুলো নামও দেওয়া হয়েছে। একই সাথে আয়াত নাম না রাখতে চাইলে ‘আ’ দিয়েও অন্য অনেক নামও দেওয়া আছে। আয়াত নামের খ্যাতিমান ব্যক্তি বর্গ সম্পর্কেও আলোচনা করা হয়েছে। 

নাম রাখার ক্ষেত্রে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ হলো নামটি শুনতে কেমন এবং নামের অর্থ কি। তাছাড়া অভিভাবকের নাম পছন্দ না হলে নামটি শিশুর জন্য রাখা উচিৎ না। 

বিভিন্ন নাম সম্পর্কে নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি বুকমার্ক করে রাখতে পারেন। তাছাড়া পোস্টটি পছন্দ হলে পোস্টে লাইক এবং কমেন্ট করতে পারেন। একই সাথে কোনো প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করে উত্তর জেনে নিতে পারেন।

 

Fahad Bin Habib

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *